প্যারাসিটামল খাওয়ার কারনে যেসব সমস্যা দেখা দেয়

Jun 22, 2016 06:20 am

 

মাথা ব্যাথা বা জ্বরের মতো যে কোনো শাররীক সমস্যায় অামরা প্যারাসিটামল ট্যাবলেট খেয়ে থাকি। অনেক সময় ডাক্তারের পরামশও নেয়া হয় না। ব্যথা নিরাময়ের জন্য বিশ্বে অন্যতম জনপ্রিয় ওষুধ প্যারাসিটামল। এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া কম হওয়ার জন্য চিকিত্‍সকরা এই ওষুধ রোগীদের প্রেসক্রাইব করে থাকেন। তবে সাম্প্রতিক গবেষণার পর ওযুধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নিয়ে আরও একবার ভাবতে হচ্ছে চিকিত্‍সকদের।

 

ওহাইয়ো স্টেট ইউনিভার্সিটির গবেষকরা পরীক্ষা করে দেখেছেন, প্যারাসিটামল প্রয়োগের ফলে শুধুমাত্র ব্যথাই কমে না, তার সঙ্গে সঙ্গে সুক্ষ অনুভূতিগুলোও ধীরে ধীরে কমে যায়। বিশেষত যাঁরা প্রতিদিন এই ওষুধ খান, তাঁদের ক্ষেত্রে আরও বেশি প্রভাব ফেলে।

 

গবেষকরা পরীক্ষা করে দেখেছেন, অনুভূতির পার্থক্য খুব স্পষ্টভাবে ধরা পড়েছে। রিপোর্টে উল্লেখ, গবেষকরা কয়েকজন ব্যক্তিকে দু'দলে ভাগ করেছেন। একটি দলকে দেওয়া হয় প্যারাসিটামল। অন্য দলকে দেওয়া হয় প্লাসেবো। ঘণ্টাখানেক বাদে, যখন ওষুধটি তার প্রভাব ফেলতে শুরু করে তখন তাঁদের ৪০টি বিভিন্ন অনুভূতির ছবি তাঁদের দেখানো হয়। পরীক্ষায় দেখা যায়, যাঁরা প্যারাসিটামল ব্যবহার করেছেন তাঁরা ছবিগুলি দেখে ততটা প্রতিক্রিয়া দেননি যতটা দিয়েছেন অন্য দলটি।

 

এই পরীক্ষার পর অ্যাসপিরিন, আইবুপ্রোফেন জাতীয় পেইনকিলারের ক্ষেত্রেও যে একই প্রভাব হতে পারে তা নিয়েও সন্দেহপ্রকাশ করা হয়েছে। এর স্বপক্ষে আরও প্রমাণ সংগ্রহ করার জন্য বিভিন্ন গবেষণা শুরু হয়েছে। সাধারণ ব্যথার ক্ষেত্রে প্যারাসিটামল ভালো কাজ করলেও রোজ ব্যবহারের ফলে অনুভূতিগুলো ভোঁতা হয়ে যাচ্ছে। ওভারডোজ হলে তা থেকে লিভারেও বড় সমস্যা দেখা দিতে পারে।